Ransomware হামলা থেকে সুরক্ষা দেবে উইন্ডোজ ১১

Ransomware হামলা থেকে সুরক্ষা দেবে উইন্ডোজ ১১

Ransomware হামলা থেকে সুরক্ষা দেবে উইন্ডোজ-১১

Ransomware হল ক্রিপ্টোভাইরোলজির এক ধরনের ম্যালওয়্যার যা শিকারের ব্যক্তিগত তথ্য প্রকাশ করার হুমকি দেয় বা মুক্তিপণ প্রদান না করা পর্যন্ত এটির অ্যাক্সেসকে স্থায়ীভাবে ব্লক করে দেয়। যদিও কিছু সাধারণ Ransomware কোনো ফাইলের ক্ষতি না করেই সিস্টেমকে লক করতে পারে, আরও উন্নত ম্যালওয়্যার ক্রিপ্টোভাইরাল এক্সটর্শন নামে একটি কৌশল ব্যবহার করে।
আক্রমণকারীরা র‍্যানসমওয়্যার দিয়ে লক্ষ্য করা সংস্থাগুলিকে বেছে নেওয়ার বিভিন্ন উপায় রয়েছে। কখনও কখনও এটি একটি সুযোগের বিষয়: উদাহরণস্বরূপ, আক্রমণকারীরা বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে টার্গেট করতে পারে কারণ তাদের কাছে ছোট নিরাপত্তা দল এবং একটি ভিন্ন ব্যবহারকারী বেস থাকে যা প্রচুর ফাইল ভাগ করে নেয়, এটি তাদের প্রতিরক্ষায় প্রবেশ করা সহজ করে তোলে।
অন্যদিকে, কিছু সংস্থা লোভনীয় টার্গেট তৈরি করছে কারণ তারা দ্রুত মুক্তিপণ দেওয়ার সম্ভাবনা বেশি বলে মনে হয়। উদাহরণস্বরূপ, সরকারী সংস্থা বা চিকিৎসা সুবিধাগুলির প্রায়ই তাদের ফাইলগুলিতে অবিলম্বে অ্যাক্সেসের প্রয়োজন হয়। আইন সংস্থাগুলি এবং সংবেদনশীল ডেটা সহ অন্যান্য সংস্থাগুলি একটি সমঝোতার খবর শান্ত রাখার জন্য অর্থ প্রদান করতে ইচ্ছুক হতে পারে — এবং এই সংস্থাগুলি লিকওয়্যার আক্রমণের জন্য অনন্যভাবে সংবেদনশীল হতে পারে।
কিন্তু আপনি যদি এই বিভাগগুলির সাথে মানানসই না হন তবে আপনি নিরাপদ বলে মনে করবেন না: যেমনটি আমরা উল্লেখ করেছি, কিছু Ransomware স্বয়ংক্রিয়ভাবে এবং নির্বিচারে ইন্টারনেট জুড়ে ছড়িয়ে পড়ে ৷
উইন্ডোজ ১১-এর জন্য নতুন নিরাপত্তা ফিচারের পরীক্ষা চালিয়েছে মাইক্রোসফট। এই সংযোজনের মাধ্যমে হ্যাকারদের বড় বড় Ransomware হামলা থেকে সুরক্ষা দেবে বলে জানা গেছে।
মাইক্রোসফট এরই মধ্যে উইন্ডোজ ১১-এর ইনসাইডার টেস্ট বিল্ডে ফিচারটি ব্যবহারের জন্য উন্মুক্ত করে দিয়েছে। মাইক্রোসফট অপারেটিং সিস্টেমের সিকিউরিটি ও এন্টারপ্রাইজ বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট ডেভিড ওয়েস্টন বলেন, রিমোট ডেস্কটপ প্রটোকলসহ (আরডিপি) যেকোনো ধরনের ব্র“ট ফোর্স পাসওয়ার্ড ভেক্টরের প্রবেশ বন্ধে উইন্ডোজ ১১তে এখন বিল্ট ইন অ্যাকাউন্ট লকআউট নীতিমালা রয়েছে।
মানুষ পরিচালিত যেকোনো ধরনের সাইবার বা Ransomware হামলায় রিমোট ডেস্কটপ প্রটোকল বেশ পরিচিত। জেডিনেটের সাম্প্রতিক প্রতিবেদনের তথ্যানুযায়ী, উইন্ডোজ ১১-এর নতুন নিরাপত্তা ফিচারটি ক্রেডেনশিয়াল ও পাসওয়ার্ড শনাক্তকরণের মাধ্যমে পরিচালিত যেকোনো ধরনের Ransomware হামলা প্রতিহতে সক্ষম।
উইন্ডোজ ১১ ছাড়াও মাইক্রোসফট বর্তমানে উইন্ডোজ ১০-এর সিস্টেমেও এ নিরাপত্তা যুক্ত করার বিষয়ে আশা প্রকাশ করেছে। সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা নতুন নিরাপত্তা ফিচারটিকে মাইক্রোসফটের জন্য অন্যতম বড় অর্জন হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন। নতুন নিরাপত্তা ফিচারটি যাদের উইন্ডোজ ভার্সনে যুক্ত করা হয়েছে তারা সহজেই এটি বের করতে পারবে। এজন্য উইন্ডোজের লোকাল কম্পিউটার পলিসি ডিরেক্টরিতে প্রবেশ করতে হবে। এরপর অ্যাকাউন্ট লকআউট পলিসি অপশনে ক্লিক করতে হবে।
ওয়েস্টন নিশ্চিত করে বলেন, মাইক্রোসফটের নতুন নিরাপত্তা ফিচারটি উইন্ডোজ ১১ ইনসাইডার প্রিভিউ বিল্ডে চলে আসবে।
সূত্র: নয়াদিগন্ত
share post:

Comments

  1. A motivating discussion is definitely worth comment. Theres no doubt that that you ought to publish more about this subject matter, it might not be a taboo subject but generally people dont talk about these subjects. To the next! All the best!!

    1. Thanks.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *